আজ প্রথম টি-টোয়েন্টি জয়ের আশা বাংলাদেশের

গত বছরটা দুঃস্বপ্নের মতোই কেটেছিল শ্রীলঙ্কার। ক্রিকেটের তিন ফরমেট মিলিয়ে ৪৭টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র ৫টিতে জিতেছিল লঙ্কানরা। চন্ডিকা হাথুরুসিংহের ছোঁয়ায় বদলে গেছে তারা। তিন জাতির টুর্নামেন্টে প্রথম দুই ম্যাচে হারার পরও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে সফরকারীরা। তাদের ঠিক বিপরীত অবস্থা বাংলাদেশের।

 

প্রথম তিন ম্যাচ জিতে কোথায় যেন হারিয়ে গেছে টাইগাররা। হাতছাড়া করেছে স্বপ্নের ত্রিদেশীয় সিরিজের ট্রফিটি। টেস্ট সিরিজেও হেরেছে। স্বাগতিকদের সামনে এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজের চ্যালেঞ্জ। আজ বিকেলেই নেমে পড়তে হচ্ছে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়। দুই ম্যাচের সিরিজের প্রথমটির মঞ্চ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম। যে মাঠটা কাল আবার ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়ে বসে আছে!

 

এমনিতেই দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বাজে। তার ওপর ইনজুরি ভালোভাবেই টাইগারদের কাঁধে চড়ে বসেছে। চোটের কারণে কুড়ি ওভারের সিরিজেও খেলা হচ্ছে না নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। ইনজুরি অনিশ্চয়তার মুখে ফেলে দিয়েছে অভিজ্ঞ দুই ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবালকেও। এ যুগলের জন্য অবশ্য ম্যাচের আগমুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করবে বাংলাদেশ।

 

এমনিতেই দল ধুঁকছে, তার ওপর ইনজুরির প্রভাব। তবু আজ থেকে শুরু হওয়া সিরিজে নিজেদের এগিয়ে রাখছেন বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কেন নিজেদের ফেভারিট ভাবছেন তিনি? সম্ভাব্য কারণ হতে পারে টি-টোয়েন্টি ফরমেটে শ্রীলঙ্কার যাচ্ছে তাই অবস্থা। শেষ ৮ ম্যাচের সবকটিতেই হেরেছে লঙ্কানরা। হোক দেশের মাটিতে, কিংবা বিদেশে। লঙ্কনরা বড্ড বিবর্ণ কুড়ি ওভারের ম্যাচে। বাংলাদেশ সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে মরিয়া। টাইগাররা অতটা খারাপ অবস্থায় নেই। শেষ তিন ম্যাচের মধ্যে একটা জয় আছে তাদের। সেটাও আবার এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই। ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকে বিদায়ী অর্ঘ্য উপহার দিয়েছেন সতীর্থতরা।

 

অবশ্য এই ফরমেটে সাম্প্রতিককালে খেলার সুযোগ খুব একটা পাচ্ছে না বাংলাদেশ। গত বছরের এপ্রিল থেকে কুড়ি ওভারের মাত্র দুটি ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। দুটোই দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি লাল-সবুজ জার্সিধারীরা, করেছেন নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ। তাই বলে বসেছিলেন না বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। গত বছরের শেষ দিকে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলেছেন তারা। সেখানে দ্যুতি ছড়িয়ে নির্বাচকদের নজরে এসেছেন বেশ কজন তরুণ ক্রিকেটারও। তাদেরই ডেকে পাঠিয়েছেন নির্বাচকরা। আজ একাধিক ক্রিকেটারের স্বপ্নের অভিষেকটাও হয়ে যেতে পারে। তবে এ ম্যাচ দিয়ে সাব্বির রহমানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা হয়ে যেতে পারে।

 

সম্ভাব্য একাদশ—

 

বাংলাদেশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম/মিঠুন আলি, আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান, রুবেল হোসেন।

 

শ্রীলঙ্কা : উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুশল মেন্ডিস, নিরোশান ডিকভেলা, ডিনেশ চান্দিমাল (অধিনায়ক), আশিলা গুনারতেœ, থিসারা পেরেরা, দাসুনশানাকা, আকিলা ধনঞ্জয়া, ইশুরু উদানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *