বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের দেশ ভারদের রাজ্যসভার সদস্য হিসেবে ৬ বছরের বেতন ও অন্যান্য ভাতা বাবদ প্রাপ্ত ৯০ লাখ রুপি প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করে দিয়েছেন ক্রিকেটের ‘লিটল মাস্টার’ খ্যাত শচীন টেন্ডুলকার। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার এই দান কৃতজ্ঞতার সঙ্গে গ্রহণ করেছেন। তার এই দান ভারতের দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের জন্য দারুণ সহযোগিতা হবে বলে মনে করেন তিনি।

ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে তার ক্যারিয়ার যতটা সমৃদ্ধ তেমনি বিদায় বেলায় দেশটির রাজ্য সভায়ও সেই স্বক্ষর রেখে গেলেন তিনি। তিনি ক্রিকেটের ২২ গজের সাফল্যের পর দেশের মানুষের পাশে থাকতে ভারতীয় রাজ্যসভায় যোগ দিয়েছিলেন। সেখানে সফল তো বটেই, বিদায় বেলায় অন্যদের জন্য দৃষ্টান্তও রেখে গেছেন এই জীবন্ত কিংবদন্তি। 

সংসদ সদস্য হিসেবে অবশ্য খুব একটা উপস্থিত থাকতেন না শচীন। এ নিয়ে তার প্রতি অভিযোগের অন্ত ছিল না। ২০১২ সালে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে তাঁর উপস্থিতি ছিল মাত্র ৭.৩%। তবে বিদায়বেলায় তিনি যে দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন, অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে বাকিদের কাছে। 

সংসদে তেমন উপস্থিত না থাকলেও গত ছয় বছরে ১৮৫টি প্রজেক্ট অনুমোদন দিয়েছেন ভারতের জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক। ৭.৪ কোটি রুপিরও বেশি খরচ করেছেন শিক্ষা খাত ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে।

Share.

About Author

Leave A Reply